Home » ফ্যাক্স এখনও ব্যবহার করা হয়? কেন?

ফ্যাক্স এখনও ব্যবহার করা হয়? কেন?

fax-still-used

আজকে এই স্মার্টফোন আর ইমেইল এর যুগে আপনাকে যদি কেউ কোনো ডকুমেন্ট ‘ফ্যাক্স’ করতে বলে তাহলে আপনি অবশ্যই খানিকটা অবাক হবেন. এমন অনেক লোক আছেন যারা ‘ফ্যাক্স’ টাকে যোগাযোগের কোন মাধ্যম হিসেবে স্বীকার করতে রাজি নয়। 

এটা স্বীকার করতে অসুবিধা নেই যে 1980 বা 90-এর দশকের মতো ফ্যাক্স বহুল প্রচলিত নয়। কিন্তু আজও নথিপত্র আদান-প্রদান করার জন্য ফ্যাক্স মেশিন ব্যবহার করা হয়। 

একটা তথ্য দিলে ব্যাপারটা আরেকটু পরিস্কার হবে, শুধুমাত্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেই প্রতি বছর হাজার হাজার ফ্যাক্স মেশিন তৈরি এবং বিক্রি হয়।

এমন অনেক প্রযুক্তি ঐতিহাসিক (যারা প্রযুক্তির ইতিহাস চর্চা করেন ) রয়েছেন যারা বিশ্বাস করেন ফ্যাক্স এর ব্যবহার খুব তাড়াতাড়ি বিলুপ্ত হওয়ার কোন সম্ভাবনাই নেই। এবং তাদের এই যুক্তির পেছনে যথেষ্ট কারণও রয়েছে। 

এখনও কোন কোন জায়গাতে ফ্যাক্স ব্যবহার করা হয়?

80 বা 90-এর দশকে ফ্যাক্স কে যোগাযোগ প্রযুক্তির প্রথম সারির অংশ হিসেবে ধরা হতো। বর্তমানে ইমেইল প্রযুক্তি আসার ফলে ফ্যাক্স এর ব্যবহার অনেকটাই কমে গেছে কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে, ফ্যাক্স মেশিন এখনও অনেক জায়গায় নিয়মিত ভাবে ব্যবহার করা হয়। 

বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি সংস্থার দ্বারা এটি নিয়মিতভাবে বাবহ্রিত হয়। আইন প্রয়োগকারী সংস্থার এর সাহায্যে জামিন, পোস্টিং বা পাবলিক রেকর্ড সরবরাহ করে। স্বাস্থ্যসেবা ক্ষেত্রে ও ফ্যাক্স মেশিন ব্যবহার করে। 

ফ্যাক্স এর উন্নত বিকল্পগুলির সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্য এটিকে আপগ্রেড করার অবিরল প্রচেষ্টা ছলছে। কিন্তু নিয়ন্ত্রক বিভ্রান্তি, অনলাইন নিরাপত্তার ভয়, এবং পরিবর্তনের বাঁধা আরিএ ফ্যাক্স মেশিনগুলি এখনও সারা বিশ্বে কাজ করছে৷

ফ্যাক্স মেশিনের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস

1980 এবং 90 এর দশকে ফ্যাক্স মেশিন এর বহুল ব্যবহারের কথা কে না জানে, কিন্তু যেটা অনেকেই জানেনা সেটা হচ্ছে ফ্যাক্স মেশিন আসলে 19 শতক এর গোড়ারদিকে আবিষ্কার হয়।  

ফ্যাক্স প্রযুক্তি আসলে স্ক্যান করা ছবি/ডকুমেন্ট ইলেকট্রনিক ভাবে পাঠানোর পদ্ধতির উন্নত রূপ। বলাই বাহুল্য ফ্যাক্স আসার প্রায় 100 বছর পর ইমেইল আবিষ্কার হয়। 

একজন স্কটিশ আবিস্কারক আলেকজান্ডার বেইনের একটি আবিস্কার এর উপর ভিত্তি করে, 1847 সালে টেলিগ্রাফ লাইনের মাধ্যমে প্রথম ফ্যাক্স পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু এটি “প্রথম ফ্যাক্স” কিনা তা নিয়ে এখনও অনেক বিতর্ক রয়েছে, কারণ সেই সময় টমাস এডিসন এবং আলেকজান্ডার গ্রাহাম বেল সহ অন্যান্য অনেক উদ্ভাবক, যোগাযোগ প্রজুক্তির জন্য বড় কিছু আবিস্কার করার চেষ্টা করছিলেন। 

সে যুগে টেলিগ্রাফ এর মাধ্যমে অনেক দূরত্ব পর্যন্ত বার্তা পাঠানোর হত – যদিও একটিরও অনেক সীমাবদ্ধতা ছিল- যেমন এর মাধ্যমে একবারে একটি মাত্র চিঠি পাঠানো সম্ভব হত। এই সময় এমন একটি প্রযুক্তির দরকার ছিল যার মাধ্যমে ডকুমেন্ট, ছবি,  অনুলিপি ইত্যাদি উচ্চ গতিতে পাঠানো সম্ভব। 

ফ্যাক্স মেশিন কিভাবে গ্রাহকের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে 

ফ্যাক্স মেশিন আবিষ্কার এর কয়েক বছরের মধ্যেই এটি যোগাযোগ প্রযুক্তির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিকল্প গুলির মধ্যে একটি হয়ে ওঠে। আমেরিকায়ে 1939 সালের বিখ্যাত নিউ ইয়র্ক ওয়ার্ল্ডস ফেয়ারের , প্রথম ফ্যাক্স মেশিন জনসমক্ষে আত্মপ্রকাশ করে।  এখানে সাধারণ গ্রাহকদের জন্য যে ফ্যাক্স মেশিন রাখা হয়েছিল সেটি প্রতি পৃষ্ঠায় 18 মিনিটের হারে সংবাদপত্রের জন্য ছবি পাঠাতে পারত – সেই সময়ে এটি একটি আশ্চর্য জনক দ্রুত গতি ছিল।

যদিও এরপরে ফ্যাক্স মেশিন জনপ্রিয় হওয়ার জন্য কয়েক শতক লেগে যায়। বলার অপেক্ষা রাখেনা ফ্যাক্স মেশিন ব্যবসায়িক বা বিভিন্ন সরকারি প্রতিস্থান এর ডকুমেন্ট লেনদেনের গতিতে বহু গুন বাড়িয়ে তুলেছিল। এর সাহায্যে পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তের মধ্যে মাত্র কয়েক মিনিতের মধ্যে নথি পাঠান সম্ভব ছিল। 

কিন্তু ইন্টারনেটের উদ্ভাবন ফ্যাক্স মেশিনের উপযোগিতা হ্রাস করেছে। 1995 সালে, MIT মিডিয়া ল্যাবের প্রতিষ্ঠাতা নিকোলাস নেগ্রোপন্টে বলেছিলেন যে ফ্যাক্স মেশিনগুলি আর আধুনিক প্রযুক্তির সাথে পাল্লা দিতে পারবে না। এরও বেশ কয়েক বছর পর, ফ্যাক্স মেশিনের চাহিদা কমতে শুরু করল এবং তার ভবিষ্যদ্বাণী সত্য হয়ে যায়।

যদিও বর্তমানে ফ্যাক্স মেশিনের চাহিদা এবং বিক্রি হ্রাস পেয়েছে কিন্তু আইন প্রয়োগকারী এবং স্বাস্থ্যসেবার মতো সেক্টরগুলি এখনও প্রতিদিনের কার্যকলাপের জন্য ফ্যাক্স মেশিনের উপর নির্ভর করে। 

ফ্যাক্স এখনও ব্যবহার করা হয় কেন?

ইন্টারনেটের যুগে ফ্যাক্স মেশিনের ব্যবহারে অনেকেরই পছন্দ নয়। কেউ কেউ আবার তীব্রভাবে তাদের অসন্তোষ প্রকাশ করে একে “প্রাচীন প্রযুক্তি” বলে। কিন্তু বিভ্রান্তি এবং ক্ষোভ সত্ত্বেও, ফ্যাক্স ব্যবহার স্বাস্থ্যসেবা ক্ষেত্রে খুব একটা কমেনি। 

স্বাস্থ্যসেবার মতো সেক্টরগুলিতে সাভাবিক এবং জরুরি পরিস্থিতি উভয় ক্ষেত্রেই ফ্যাক্স মেশিনের ব্যবহার করা হয়। একটি অনুমান অনুযায়ী, প্রায় 3/4 মেডিকেল যোগাযোগ ফ্যাক্সের মাধ্যমে ঘটে!

হাসপাতালের জন্য ফ্যাক্স থেকে আরও উন্নত ইলেকট্রনিক মাধ্যমে পরিবর্তন করার আরেকটি প্রধান বাধা হল কম্পিউটার হ্যাক করা সহজ। তারা মনে করে যে একটি ফ্যাক্স মেশিন অপরাধীদের দ্বারা আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কম্পিউটার এর থেকে কম। 

আইন প্রয়োগকারী অন্য একটি ক্ষেত্র যা ফ্যাক্স মেশিনের ব্যবহার অনেক। আসলে  আইন প্রয়োগকারী সংস্থা গুলির ক্ষেত্রে ডেটা এন্ট্রি প্রোটোকল গুলি এখনো এনালগ রয়ে গেছে। 

অনেক উন্নত প্রযুক্তির থাকা সত্ত্বেও, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আইন প্রয়োগকারী বিভাগগুলি দৈনন্দিন কাজের জন্য ফ্যাক্স মেশিন সহ মোটামুটি কম প্রযুক্তির সরঞ্জামগুলির উপর নির্ভর করে।