Home » গুগল » জিমেইল-Gmail » জিমেইল একাউন্ট এর নিরাপত্তা রক্ষার উপায়

জিমেইল একাউন্ট এর নিরাপত্তা রক্ষার উপায়

Personal letter, Flight booking, Bank Statement, Official letter এমনকি আপনি যদি gmail account এর password পরিবর্তন করতে চান তাহলে তার password reset request টিও এসে জমা হয় সেই gmail account এই ।

আপনার gmail account টি আপনার personal information এর একটি বিশাল ভাণ্ডার । 

বলার অপেক্ষা রাখে না যে এই সমস্ত information যদি কোন অসৎ ব্যক্তির হাতে গিয়ে পড়ে তাহলে কী পরিণতি হতে পারে।

আজকাল প্রায় প্রতিদিনই gmail account hacking  এর ঘটনা আমাদের সামনে উঠে আসছে।

 কিন্তু এসব ঘটনা সত্ত্বেও আশার কথা এই যে আমাদের gmail account কতটা সুরক্ষিত থাকবে সেটা পুরোপুরি নির্ভর করে আমাদের নিজেদের ওপরে। 

 শুধুমাত্র কয়েকটি পদক্ষেপের মাধ্যমে আপনি আপনার্ন gmail address কে নিমেষের মধ্যে অনেক বেশি সুরক্ষিত করে তুলতে পারেন যা অন্য 90% gmail account ব্যবহারকারীরা করেননা। 

1. Strong password ব্যবহার করুন

সারাদিন আমরা কত শব্দ শুনি এবং নিজের থেকে কত শব্দ বানায় কিন্তু যখন password তৈরি করার কথা আসে তখন আমাদের অলসতার সীমা থাকে না।

তখন আমরা কয়েকটি সোজাসাপ্টা password ব্যবহার করি অথবা সমস্ত account এর জন্য শুধুমাত্র একটি password ব্যবহার করি। আর এই  দুটির একটিতেও বিপদের আশঙ্কা কোন ভাবেই কমেনা।

 যদি আমরা সোজাসাপ্টা কোন password ব্যবহার করি, সে ক্ষেত্রে আমাদের মনে রাখতে হবে account hacker রা এই সমস্ত password আন্দাজ  করতে expert

 অপরদিকে যদি আপনি বিভিন্ন account এর জন্য একটিমাত্র password ব্যবহার করেন, সে ক্ষেত্রে ওই বিভিন্ন একাউন্ট গুলির মধ্যে যেকোনো একটি ও যদি hack হয় তবে অন্যগুলো hack হওয়া টা শুধুমাত্র সময়ের অপেক্ষা।

এক্ষেত্রে আপনাকে যা  করতে হবে তা হল, আপনার যতগুলি account রয়েছে  প্রত্যেকটির জন্য আলাদা আলাদা password ব্যবহার করতে হবে। এবং এই password গুলি unique এবং randomly generated password হওয়া উচিত।

এই বিভিন্ন password মনে রাখতে অসুবিধা হলে আপনি  password manager  এর সাহায্য নিতে পারেন।

জিমেইল এর পাসওয়ার্ড চেঞ্জ করবেন কি ভাবে?

2. Account এর two-step verification টি enable করুন

two-step verification কে অনেক সময় two-factor authentication ও বলা হয়।

এই two-step verification  হল password এর ওপরে একটি অতিরিক্ত সুরক্ষা।

এক্ষেত্রে gmail account এ log-in এর সময় যখন password enter করার পরে google আপনার register করা phone number এ  একটি OTP-pin পাঠাবে। ওই OTP-pin টি  password এর পরবর্তী  screen এ দিলে তবাই আপনার gmail account এ log-in করা সম্ভব হবে।

 এরপরেও যদি আপনি আরেকটু বেশি সর্তকতা অবলম্বন করতে চান তাহলে আপনি google account এর  জন্য authentication app ব্যবহার করতে পারেন।

3. Account এর backup contact method গুলি check করুন

যখন আপনি প্রথমবার gmail account  তৈরি করেছিলেন তখন gmail আপনার কাছে verification এর জন্য দুটি জিনিস চেয়েছিল। প্রথমটি হলো phone number এবং দ্বিতীয় টি হলো একটি বিকল্প email address। 

 এই দুটি জিনিস চাওয়ার উদ্দেশ্য হলো যদি কোন কারণে আপনার gmail account lock হয়ে যায় তাহলে আপনার  phone number এবং বিকল্প email address এর সাহায্যে আপনি প্রমান করতে পারবেন যে lock হয়ে যাওয়া gmail account এর  আসল মালিক আপনি।

সুতরাং gmail account এ দেওয়া বিকল্প email address এবং phone number টি যদি আপনি  আর ব্যবহার না করেন তাহলে, gmail account এর মধ্যে ঢুকে সেগুলিকে update করে ফেলুন। 

4. Account activity check করুন

 অনেক সময় এমনও হতে পারে যে আপনার gmail account টি hack করা হয়েছে, কিন্তু hacker আপনার account এর access আপনার হাত থেকে নিয়ে নেয় নি।

সে ক্ষেত্রে hacker  চুপিসারে ইদুরের মত আমাদের account এ বারংবার log-in করতে পারে এবং তার ইচ্ছেমত information চুরি করে পালাতে পারে।

 এক্ষেত্রে যেহেতু account access আপনার হাত থেকে নিয়ে নেওয়া হয়নি তাই স্বাভাবিকভাবে আপনার  মনে হতে পারে যে gmail account কি পুরোপুরি সুরক্ষিত আছে।

 এক্ষেত্রে প্রত্যেক ব্যবহারকারীর উচিত gmail account এর এর “Last account activity” এর ওপর নজর রাখা। 

এই “Last account activity”  টি খুঁজে পাওয়ার জন্য, gmail account এ log-in করার পর page টির  একেবারে নিচের দিকে “Last account activity”  দেখতে পাবেন।

এরপর display তে click করলে দেখতে পাবেন আপনার account এ কে কখন কোথাথেকে log-in করেছে

এটি দেখে যদি কোনরকম সন্দেহজনক কার্যকলাপ আপনার চোখে ধরা পড়ে তাহলে তাড়াতাড়ি passwordটি পরিবর্তন করে Sign out of all other Gmail web sessions তে ক্লিক  করুন।