Home » COMPUTER » Computer Memory || কম্পিউটার মেমরির

Computer Memory || কম্পিউটার মেমরির

একজন মানুষের জন্য memory বলতে বোঝায় মস্তিষ্কের এমন একটি জায়গা যেখানে আমরা দৈনন্দিন জীবনের বিভিন্ন স্মৃতি অভিজ্ঞতা বা দরকারি কোন information সেভ করে রাখি, যাতে সেগুলো ভবিষ্যতে আমাদের কাজে আসে।

কম্পিউটারের memory ও ঠিক তেমনি বিভিন্ন information save করে রাখার একটি জায়গা। পার্থক্য শুধু এটুকুই, কম্পিউটারের ক্ষেত্রে এর ব্যবহার একটু সীমিত। কম্পিউটারকে দিয়ে কোন কাজ করাতে হলে প্রথমে তাকে কিছু ইনস্ট্রাকশন দিতে হয় এই ইন্সট্রাকশন গুলি প্রাথমিকভাবে মেমোরিতে স্টোর হয়।

কিন্তু উভয় ক্ষেত্রেই memoryর ব্যবহার দুটি, ডেটা storage এবং recall ।

কোন memoryর ক্ষেত্রে এটা খুব দরকারি বিষয়, যে ইনফরমেশন কি তার মধ্যে সেভ করা আছে সেগুলি যেন ভবিষ্যতে ঠিক ভাবে recall করা যায় অন্যথায় memory থাকা বা না থাকা সমান।

computer memoryর ক্ষেত্রে, তার মধ্যে সেভ করা প্রতিটি ইনফরমেশনের address টা খুবই দরকারি। যেতে ভবিষ্যতে সেই ইনফরমেশন এর প্রতিটি byte খুঁজে বের করা যায়।

তা সে যাই হোক না কেন, হতে পারে সেভ করা ইনফর্মেশন টি কোন প্রোগ্রাম অথবা কোন গানের অংশ। আর ঠিক সেই কারণেই প্রতিটি information পজিশন (address) মনে রাখাটা খুব দরকারি।

কোন কম্পিউটারের memory একটা বিশাল বড় আলমারির মতো। যেখানে অনেক তাক একটার উপর আরেকটা সাজানো আছে। এবং এই আলমারিতে রাখা সমস্ত ডেটা নির্দিষ্ট order এ সাজানো থাকে। প্রতিটি তাকে একটি নির্দিষ্ট নাম্বারও আছে এই নাম্বারের উপর নির্ভর করে computer ভবিষ্যতে কোনো নির্দিষ্ট information খুঁজে বের করতে সক্ষম হয়।

প্রাথমিকভাবে কোন memory কত সময় যাবত কোন নেতাকে স্টোর করে রাখবে তার ওপর ভিত্তি করে memoryকে সাধারণত দু’ভাগে ভাগ করা হয়, short-term memory এবং long-term memory।

মেমোরি যে কোনো কম্পিউটার এর একটি খুব গুরুত্বপূর্ণ অংশ। মেমোরি মাদারবোর্ড এর অংশ । প্রধানত দুই ধরনের মেমোরি কম্পিউটারে ব্যবহার করা হয়। এক ধরনের মেমোরি কম্পিউটারে স্থায়ি ভাবে ডাটা সঞ্চয় করতে সাহায্য করে এবং অন্য ধরনের মেমোরি কম্পিউটার কে চলতে সাহায্য করে।

Types of Memory || কম্পিউটার মেমরির প্রকারভেদ

Primary Memory বা প্রাথমিক মেমরি

Secondary Memory বা গৌণ মেমরি

computer memory

Primary Memory / প্রাথমিক মেমরি

Primary memory কে অনেক সময় main memory বাInternal memory.” এবং primary storage ও বলা হয়ে থাকে. কম্পিউটারের processor যে সমস্ত memory কে সরাসরি data bus এর মাধ্যমে access করতে পারে তাদের primary memory বলে।

প্রাইমারি মেমোরি হলো অত্যন্ত গতি সম্পন্ন মেমোরি যেমন RAM (Random Access Memory) । গতি বলতে এখানে মেমোরির মধ্যে কোন data right করা বা মেমোরি থেকে কোন data read করার সময় বোঝাচ্ছে।

Primary memoryর দুটি মূল ধরণ রয়েছে:

  1. RAM (Random Access Memory)
    • DRAM বা Dynamic RAM
    • SRAM বা Static RAM
  2. ROM (Read-Only Memory)
    • PROM বা Programmable Read-Only Memory
    • EPROM বা Erasable Programmable Read-Only Memory
    • EEPROM বা Electrically Erasable Programmable Read-Only Memory
Types of Primary Memory

secondary memory থেকে Primary memoryর data read বা right করার গতি অনেক বেশি, প্রায় ৫০গুন। ঠিক এই কারনে প্রাইমারি মেমোরি এবং সেকেন্ডারি মেমোরির মধ্যে ডাটা ট্রান্সফারের সময় অসুবিধার সৃষ্টি হয়। এবং এই সমস্যা সমাধানের জণ্য ‘Cache Memory’  বলে এক ধরনের মেমোরি ব্যবহার করা হয়। memory management একটি খুব গুরুত্বপূর্ণ কাজ যেটি সাধারণত কোন কম্পিউটারের operating system করে থাকে।

কম্পিউটার মেমরির সাথে সরাসরি যুক্ত কিছু প্রধান concepts হল Virtual memory, swapping, buffering, paging, blocks, Internal fragment, and external fragment ইত্যাদি।

Volatile Memory (RAM)RAM হল একটি ভোলাটাইল মেমোরি অর্থাৎ RAM এর মধ্যে রাখা কোন ইনফরমেশন ততক্ষণ সংরক্ষিত থাকে যতক্ষণ মেমরিটি সাথে বিদ্যুৎ সংযুক্ত থাকে। যে মুহূর্তে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয় ওই মেমোরির মধ্যে রাখা সমস্ত ডাটা মুছে যায়।

পরবর্তী সময়ে ওই কম্পিউটার চালু করে কোন কাজ করতে হলে প্রথমে হার্ডডিস্ক থেকে রাম এর মধ্যে ডাটা এবং ইনস্ট্রাকশন লোড করতে হবে। Volatile memory আবার দুই ধরনের হতে পারে যেমন – SRAM (Static Random Access Memory) বা DRAM (Dynamic Random Access Memory).

SRAM ততক্ষণ কোন ডেটা সংরক্ষণ করতে পারে যতক্ষণ সেটির সাথে বিদ্যুৎ সংযুক্ত থাকে। এই ধরনের প্রতি bit এর জন্য ছটি করে transistor থাকে।

অপরদিকে DRAM অপেক্ষাকৃত জটিল, এই ধরনের RAM এ regular refresh cycles প্রয়জন হয় যাতে এর মধ্যে রাখা ডাটা মুছে না যায়। এ ধরনের RAM এ প্রতি bit এর জন্য একটি করে transistor এবং একটি করে capacitor ব্যবহার করা হয়।

SRAM অপেক্ষাকৃত খরচ সাপেক্ষ কিন্তু DRAM এর তুলনায় অনেক দ্রুতগতির। Cache Memory তৈরি করতে DRAM ব্যবহার করা হয়।

Paging – Paging হল এক ধরনের memory management techniques, যার মাধ্যমে বিক্ষিপ্ত ভাবে physical memory address space , allocate করা সম্ভব।

Cache – সিপিইউর Memory-Processing speed, RAM এর তুলনায় 50 গুণ দ্রুত। সুতরাং সিপিইউ যখন কোন ডেটা Process করে তখন যদি তাকে বারংবার RAM থেকে ডাটা বের করে আনতে হয়, সে ক্ষেত্রে সিপিইউ এর কাজ করার ক্ষমতা বা গতি লোপ পায়।

এই সমস্যার সমাধান করার জন্য বা একটি নতুন ধরনের মেমোরি তৈরি করা হয় যা সিপিইউর সাথে তাল মিলিয়ে ডেটা আদান প্রদান করতে পারে। এটি হলো Cache Memory।

একটি সিপিইউ এর মধ্যে অন্তত পক্ষে তিনটি নিরপেক্ষ Cache Memory থাকে সেগুলির নাম হল instruction cache , data cache , translation lookaside buffer (TLB) ।

Secondary Memory / গৌণ মেমরি

Secondary memory কে অনেক সময় secondary storage, permanent, external, stable বা persistent memory ও বলা হয়ে থাকে । এই মেমোরি গুলির reading ও writing speed, main memory এর তুলনায় অপেক্ষাকৃত ধীরগতির।

কিন্তু main memoryর তুলনায় ডাটা ধারন করার capacity অনেক বাশি হয়। CPU সরাসরি এই মেররির ডাটা process করেনা, secondary memory কে input/output operations এর মাধ্যমে access করতে হয়।

কম্পিউটার দ্বারা processed করা data সাধারনত digital formatএ hard disk drive (HDD) , optical drives, tape drives, external hard drives, RAID বা USB তে store করা হয়, এইগুলিকেই Secondary memory, বা removable mass storage devices(MSDs) বলা হয়।

Secondary memory device গুলি যে শুধু files backup করার জন্য উপযোগী তাই নয়, এর সাহায্যে বিশাল আকার ডাটা অন্য Secondary memory deviceএ অতি সহজে transfer করা যায়।

কোন কম্পিউটারের Secondary Memory হল সাধারণত permanent storage memory। এই ধরনের মেমোরি non-volatile। মানে যদি এই মেমোরি গুলির থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয় তাহলে এর মধ্যে রাখা ডাটা সংরক্ষিত থাকে। কম্পিউটারের হার্ডডিস্ক একটি সেকেন্ডারি স্টোরেজ ডিভাইস বা সেকেন্ডারি মেমোরি।