Home » ওটিপি কি ? কথায় এবং কি ভাবে প্রয়োগ করা হয়

ওটিপি কি ? কথায় এবং কি ভাবে প্রয়োগ করা হয়

ওটিপি মানে

এই পোস্টে, আপনি ওটিপি মানে কী তা জানতে পারবেন , যখনই আপনি অনলাইনে কোনও লেনদেন করবেন বা আপনার মোবাইল বা পিসি থেকে অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন, তখন যাচাইয়ের জন্য আপনার মোবাইলে একটি ওটিপি কোড আসবে। 

ও টিপ এর মাধ্যমে আপনার অ্যাকাউন্টটি নিশ্চিত হলে তবেই আপনি টাকা-পয়সার লেনদেন বা একাউন্ট এর মধ্যে ঢুকতে পারবেন। 

আজকের ডিজিটাল বিশ্বে, বেশিরভাগ কাজ অনলাইনে হয়ে গেছে, সেটা মোবাইল রিচার্জ করা হোক বা টাকা লেন দেন করা হোক। 

ওটিপি আসলে অনলাইন কাজকর্মে নিরাপত্তা বাড়ানোর জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে, বিশেষ করে অর্থের ক্ষেত্রে। অর্থ লেনদেনের ক্ষেত্রে আপনি অবশ্যই কিছু সময়ে OTP ব্যবহার করেছেন।

বিশেষ করে যখন অনলাইনে লেনদেন  এর ক্ষেত্রে নিরাপত্তা একটা উদ্বিগ্ন কারণ। অনলাইনে অর্থ স্থানান্তর করা যতটা ঝুঁকিপূর্ণ, ততই নিরাপত্তার বিষয়ে চিন্তা করা অপরিহার্য। 

কিন্তু যখন আপনি অনলাইনে টাকাপয়সা লেনদেন করবেন তখন OTP এর ব্যবহার আপনাকে অতিরিক্ত নিরাপত্তা প্রদান করবে,  যা যেকোনো রকম জালিয়াতি এডাকেশন করে। 

অবশ্যই পড়ুন

ওটিপি কি

ওটিপির অর্থ হল “ ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড”, ওটিপি আসলে এক ধরনের  পাসওয়ার্ড যা আপনি শুধুমাত্র একবার ব্যাবহার করতে পারবেন। এটি একটি 6 ডিজিটের সুরক্ষা কোড। 

উদাহরণ স্বরুপ ধরা যাক যদি আপনার জি-মেইল অ্যাকাউন্টে টু স্টেপ ভেরিফিকেশন অপশনটি এনাবল করা থাকে তাহলে।  

যখনই আপনি আপনার জি-মেইল অ্যাকাউন্টে লগইন করতে যাবেন প্রতিবার পাসওয়ার্ড ইন্টার করার পরে আপনার ফোনে একটি ওটিপি আসবে।  

এই OTP টি  লগইন পরবর্তী স্ক্রিনে এন্টার করলে তবেই আপনি আপনার জি-মেইল অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করতে পারবেন।

কেন ওটিপি প্রয়োজন

যখনই আমরা কোন ওয়েবসাইট বা অ্যাপে একাউন্ট তৈরি করি, অধিকাংশ মানুষই একটি সাধারণ user name এবং password তৈরি করে। 

প্রায়শই মানুষ তার পাসওয়ার্ড হিসাবে তার জন্ম তারিখ বা মোবাইল নম্বর ব্যবহার করে  এবং এটি তাদের সবচেয়ে বড় ভুল। কারণ হ্যাকাররা এই ধরনের সহজ user name এবং password যুক্ত  অ্যাকাউন্টগুলিকে টার্গেট করে।

অনেক ক্ষেত্রে, এমনও হতে পারে যে আপনার পরিচিত কেউ ইতিমধ্যে আপনার user name এবং password জানে। 

এমন পরিস্থিতিতে, তিনি সহজেই আপনার অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করতে পারেন এবং বিভিন্ন রকম অপ্রীতিকর কাজকর্ম করতে পারেন। 

এই সমস্যা সমাধানের জন্য, সমস্ত ব্যাংক, ই-কমার্স ওয়েবসাইট, অনলাইন ওয়ালেট পেমেন্ট সংস্থা গুলি OTP ব্যবহার করা শুরু করেছে। 

এছাড়াও আপনি যদি আপনার একাউন্টের পাসওয়ার্ড রিসেট করতে চান তাহলে  সেক্ষেত্রেও ওটিপি ব্যবহার করা হয়। 

ওটিপি ব্যবহার

এই OTP এর সবচেয়ে ভালো বিষয় হল যে system generated. অর্থাৎ সিস্টেম থেকে সরাসরি আপনার মোবাইলে পাঠানো হয় । 

এবং OTP কোড শুধুমাত্র একবার ব্যবহার করা যাবে এবং এটি শুধুমাত্র কিছু সময়ের জন্য বৈধ থাকে। 

যদি এই কোডটি সেই বৈধ সময়ের মধ্যে ব্যবহার না করা হয়, তাহলে এই কোড টির আর কোন মূল্য থাকে না।

প্রতি বার সিস্টেম  আপনার মোবাইলে একটি নতুন ওটিপি পাঠায়। অর্থাৎ,  আপনি যতবার আপনার একাউন্টে লগইন করবেন বা কোন রকম অর্থ লেনদেন করবেন ততোবারই নতুন OTP আসবে, এটি আপনার অ্যাকাউন্টকে অনেক বেশি নিরাপদ করে তোলে।

যদি কেউ আপনার অ্যাকাউন্টের user name এবং password জানতে ও পারে, তবুও সে আপনার অ্যাকাউন্টের ক্ষতি করতে পারবে না। 

কারণ অ্যাকাউন্টটি অ্যাক্সেস করার জন্য, OTP প্রয়োজন যা শুধুমাত্র আপনার মোবাইলে আসবে।

এটা কোথায় ব্যবহার করা হয়

আজ, প্রায় সব ব্যাংকই অনলাইনে অর্থ লেনদেনের জন্য ওটিপি প্রক্রিয়া শুরু করেছে। এমনকি এটিএম , ক্রেডিট কার্ড এবং ই ওয়ালেট  ইত্যাদি ব্যবহারের  জন্য আপনাকে ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড দিতে হবে। 

গুগল তার ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত করার জন্য ওটিপি পাঠানো শুরু করেছে। 

আপনি যদি এটি সক্রিয় করেন তাহলে আপনি ছাড়া কেউ কাউ আপনার অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করতে পারবে না, কারণ গুগল আপনার মোবাইলে ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড পাঠায় যা শুধুমাত্র আপনিই জানতে পারবেন।

এই সব ছাড়াও, ই-কমার্স কোম্পানি গুলি তাদের সমস্ত অনলাইন পেমেন্ট ওয়ালেট পেমেন্টের সময় আপনার নিবন্ধিত মোবাইল নম্বরে ওটিপি পাঠায়।

ওটিপির সুবিধা কি কি

  • এটি এক ধরণের নিরাপত্তা কোড যা আপনার অ্যাকাউন্ট নিরাপদ রাখে এমনকি পাসওয়ার্ড এবং ব্যবহারকারীর নাম চুরি হয়ে গেলেও তা সুরক্ষিত রাখে।
  • এটি অ্যাকাউন্টের প্রকৃত ব্যবহারকারীকে প্রমানিত করে।
  • OTP একদম ফ্রি, এর জন্য আপনাকে কোন প্রকার ফি দিতে হবে না।
  • এটি আসল ব্যবহারকারীকে শনাক্ত করার দ্রুততম উপায়।

এখন আপনি নিশ্চয়ই জেনে গেছেন যে ওটিপি কি। সুতরাং এখন থেকে আপনি অনলাইনে যে কোন কাজই করুন না কেন,  ওটিপি ব্যবহার করতে ভুলবেন না। 

প্রায়ই OTP কারো সাথে শেয়ার না করতে বলা হয় কারণ এটি এমন একটি পাসওয়ার্ড যা সব ক্ষেত্রীই খুবই গুরুত্বপূর্ণ। 

এবং এটি শুধুমাত্র একটি সময়ের জন্য উৎপন্ন হয় এবং এটি অত্যন্ত সংবেদনশীল তাই আপনার অন্য কোন ব্যক্তির জিজ্ঞাসা করা সত্ত্বেও OTP শেয়ার করা উচিত নয়। 

প্রতারক লোকেরা প্রায়ই এই ওটিপি চেয়ে থাকে যাতে তারা আপনার অ্যাকাউন্ট নিয়ন্ত্রণ করতে পারে, তাই আপনার কারো সাথে ওটিপি শেয়ার করা উচিত নয়। তাই আশা করি এই তথ্যটি আপনার জন্য উপকারী প্রমাণিত হবে।